• Breaking News

    দীপাবলী

    Logic-search-engine

    Age-calculator-বয়সের-হিসেব

    বাক্যকে-বচনে-পরিনত-করার-নিয়ম-কি?

    Thursday, September 16, 2021

    আবর্তন কাকে বলে? আবর্তনের নিয়মগুলি কী কী? A বচনের সরল আবর্তন হয় না কেন?

    আবর্তন

    আবর্তন কাকে বলে?
    আবর্তনের নিয়মগুলি কী কী?
    A বচনের সরল আবর্তন হয় না কেন?





    আবর্তন কাকে বলে?

    উত্তর:- যে অমাধ্যম অনুমানে যুক্তিবাক্যের উদ্দেশ্য এবং বিধেয়র স্থানপরিবর্তন করে এবং অর্থটিকে এক রেখে সিদ্ধান্তে একটি নতুন বচন প্রতিষ্ঠা করা হয়, সেই অমাধ্যম অনুমানকেই বলা হয় আবর্তন (Conversion)।



    আবর্তনের কয়টি বচন থাকে এবং কি বচন থাকে?

    উত্তর:- আবর্তনের মোট দুটি বচন থাকে।

    দুটি নিরপেক্ষ বচন থাকে।



    আবর্তনের যুক্তিবাক্যকে কি বলা হয়?

    উত্তর:- আবর্তনের যুক্তিবাক্যকে আবর্তনীয় (Convertend)বলা হয়।



    আবর্তনের সিদ্ধান্তকে কি বলা হয়?

    উত্তর:- আবর্তনের সিদ্ধান্তকে আবর্তিত (Converse)বলা হয়।



    আবর্তনের একটি উদাহরণ দাও।

    উত্তর:- যুক্তিবাক্য : L.F. "I": কোনো কোনো খলনায়ক হয় নায়ক।
    সিদ্ধান্ত : L.F. "I": কোনো কোনো নায়ক হয় খলনায়ক।



    আবর্তনের নিয়মগুলি কী কী?

    উত্তর:- আবর্তনের চারটি নিয়ম আছে। যথা-

    প্রথম নিয়ম :- যুক্তিবাক্যের উদ্দেশ্য পদটি সিদ্ধান্তের বিধেয় পদ হবে।

    দ্বিতীয় নিয়ম:- যুক্তিবাক্যের বিধেয় পদটি সিদ্ধান্তের উদ্দেশ্য পদ হবে।

    তৃতীয় নিয়ম:- যুক্তিবাক্য এবং সিদ্ধান্তের গুন এক হবে।
    অর্থাৎ, যুক্তিবাক্য হ্যাঁ-বাচক হলে সিদ্ধান্তটিও হ্যাঁ-বাচক হবে, আর যুক্তিবাক্য না-বাচক হলে সিদ্ধান্তটিও না-বাচক হবে।

    চতুর্থ নিয়ম:- যে পদ যুক্তিবাক্যে ব্যাপ্য নয়, সে পদটি সিদ্ধান্তে কখনোই ব্যাপ্য হতে পারে না।



    আবর্তনের উদাহরণের ব্যাখা কর।

    উত্তর:- যুক্তিবাক্য : L.F. "I": কোনো কোনো খলনায়ক হয় নায়ক।
    সিদ্ধান্ত : L.F. "I": কোনো কোনো নায়ক হয় খলনায়ক।
    ব্যাখ্যা :-
    এখানে যুক্তিবাক্যে উদ্দেশ্য পদ হল- "খলনায়ক" আর সিদ্ধান্তে সেটা হবে বিধেয় পদ । আর এখানে যুক্তিবাক্যে বিধেয় পদ হল- "নায়ক" আর সিদ্ধান্তে সেটা হবে উদ্দেশ্য পদ ।আবার যুক্তিবাক্যটিতে "I" বচন হয়েছে। তাই এই বচনটি হল- বিশেষ বচন এবং সদর্থক বচন অর্থাৎ হ্যাঁ-বাচক। আর "I" বচন কোনো পদকেই ব্যাপ্য করে না। অতএব সিদ্ধান্তটিও হবে সদর্থক বচন বা হ্যাঁ-বাচক আর সিদ্ধান্তেও কোনো পদকেই ব্যাপ্য করবে না। তবেই হবে বৈধ আবর্তন।



    আবর্তন কত প্রকার ও কী কী?

    উত্তর:- আবর্তন দুই প্রকার। যথা-
    i) সরল আবর্তন। ii) অ-সরল আবর্তন।



    সরল আবর্তন কাকে বলে?

    উত্তর:- যে আবর্তনের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত ও আশ্রয়বাক্যের পরিমান এক হয়, তাকে সরল আবর্তন বলে।
    অর্থাৎ,যুক্তিবাক্য যদি সামান্য বচন হয় তবে সিদ্ধান্তটিও সামান্য বচন হবে। অথবা যুক্তিবাক্য যদি বিশেষ বচন হয় তবে সিদ্ধান্তটিও বিশেষ বচন হবে।

    যেমন:-
    যুক্তিবাক্য : L.F. "E": কোনো মানুষ নয় দেবতা।
    সিদ্ধান্ত : L.F. "E": কোনো কোনো দেবতা নয় মানুষ।

    যুক্তিবাক্য : L.F. "I": কোনো কোনো খলনায়ক হয় নায়ক।
    সিদ্ধান্ত : L.F. "I": কোনো কোনো নায়ক হয় খলনায়ক।



    অ-সরল আবর্তন কাকে বলে?

    উত্তর:- যে আবর্তনের ক্ষেত্রে আশ্রয়বাক্য ও সিদ্ধান্তের পরিমান পৃথক হয়, তাকে অ-সরল আবর্তন বলে।
    অর্থাৎ,যুক্তিবাক্য যদি সামান্য বচন হয় তবে সিদ্ধান্তটি বিশেষ বচন হবে। অথবা যুক্তিবাক্য যদি বিশেষ বচন হয় তবে সিদ্ধান্তটি সামান্য বচন হবে।

    যেমন:-
    যুক্তিবাক্য : L.F. "A": সকল মানুষ হয় মরণশীল।
    সিদ্ধান্ত : L.F. "I": কোনো কোনো মরণশীল জীব হয় মানুষ।



    A বচনের সরল আবর্তন হয় না কেন?

    উত্তর:- "A" বচনের সরল আবর্তন সম্ভব নয়। কারণ:-


    যুক্তিবাক্য : L.F. "A": সকল শিক্ষক হয় মানুষ।
    সিদ্ধান্ত : L.F. "A": সকল মানুষ হয় শিক্ষক।



    ব্যাখ্যা :-
    এখানে যুক্তিবাক্যটি "A" বচন হয়েছে। সরল আবর্তনের নিয়ম অনুসারে সিদ্ধান্তটিও "A" বচন হবে।

    • এখানে আবর্তনের প্রথম নিয়মটি হল- যুক্তিবাক্যে উদ্দেশ্য পদটি সিদ্ধান্তে বিধেয় স্থানে যাবে।অর্থাৎ, যুক্তিবাক্যে উদ্দেশ্য পদ - "শিক্ষক" এটা সিদ্ধান্তে বিধেয় স্থানে যাবে।

    • এখানে আবর্তনের দ্বিতীয় নিয়মটি হল- যুক্তিবাক্যে বিধেয় পদটি সিদ্ধান্তে উদ্দেশ্য স্থানে যাবে।অর্থাৎ, যুক্তিবাক্যে বিধেয় পদ - "মানুষ" এটা সিদ্ধান্তে উদ্দেশ্য স্থানে যাবে।

    •এখানে তৃতীয় নিয়ম হল- যুক্তিবাক্য এবং সিদ্ধান্তের গুন এক হবে। অর্থাৎ, যুক্তিবাক্যে সদর্থক বচন (A বচন) হয় তবে সিদ্ধান্তেও সদর্থক বচন (A বচন) হবে।

    • এখানে চতুর্থ নিয়ম হল- যে পদ যুক্তিবাক্যে ব্যাপ্য নয়, সে পদটি সিদ্ধান্তে কখনোই ব্যাপ্য হতে পারে না। অর্থাৎ, যুক্তিবাক্য A বচন হওয়ার জন্য উদ্দেশ্য পদকেই ("শিক্ষক") ব্যাপ্য করে। কিন্তু বিধেয় পদকে ("মানুষ") ব্যাপ্য করে না।

    কিন্তু সিদ্ধান্তে সেই বিধেয় পদ এখানে উদ্দেশ্য পদ তাই এখানে ব্যাপ্য করেছে তাই নিয়মটি লঙ্ঘন করেছে।

    অতএব আবর্তনের প্রথম ও দ্বিতীয় এবং তৃতীয় নিয়ম মেনেছে ঠিকও কিন্তু চতুর্থ নিয়মটি লঙ্ঘন করেছে। তাই A বচনের সরল আবর্তন সম্ভব নয়।







    conversion

    আবর্তন কাকে বলে?

    আবর্তনের নিয়মগুলি কী কী?

    A বচনের সরল আবর্তন হয় না কেন?
    rules of conversion in philosophy

    যদি তোমাদের এগুলো ভালো লাগে তাহলে কোমান্ড কর আর শেয়ার কর। তাহলে আমি আরও লিখব তোমাদের জন্য ।


    ধন্যবাদ

    No comments:

    Post a Comment